রামের পুত্র কুশের বংশধর আমরা, সুপ্রিম কোর্ট চাইলে প্রমাণ দেখাবো,দাবি বিজেপি সাংসদ দিয়া কুমারীর

রামের পুত্র কুশের বংশধর আমরা, সুপ্রিম কোর্ট চাইলে প্রমাণ দেখাবো,দাবি বিজেপি সাংসদ দিয়া কুমারীর

আমাদের ভারত,১২ আগস্ট: শীর্ষ আদালত প্রশ্ন করেছিল, এখনো কি শ্রীরামের উত্তরসূরি রয়েছেন? এ প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি রামলালা বিরাজ মানের আইনজীবি কে পরাশরণ। কিন্তু এরপরই বিজেপি সাংসদ দিয়া কুমারী দাবি করেন তার পরিবার ভগবান শ্রী রামের বংশধর। শুধু তাই নয় তিনি তার প্রমাণও দিতে পারেন বলে জানিয়েছেন।

দিয়া কুমারী রাজস্থানের জয়পুরের রাজ পরিবারের সদস্যা। তার দাবি তার পরিবার রামের পুত্র কুশের বংশধর। রাজস্থানের রাজপরিবারের এই সদস্যার কথায় , “আদালত জানতে চেয়েছে আদৌ রঘুবংশের কোন উত্তরসূরি রয়েছে কিনা?রামের উত্তরসূরী গোটা বিশ্বে রয়েছে। আমাদের পরিবার রামের পুত্র কুশের বংশধর। ” তিনি দাবি করেন তার কাছে থাকা নথি এবং বংশ তালিকা প্রয়োজনে শীর্ষ আদালতের কাছে তিনি পেশ করতেও পারেন। কিন্তু অযোধ্যা মামলায় তিনি সরাসরি যুক্ত হতে চান না বলে জানিয়ে দিয়েছেন।

সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চে প্রতিদিন চলছে অযোধ্যা মামলার শুনানি। বিভিন্ন নথি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এই সময় রামলালা বিরাজমান এর আইনজীবিকে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ প্রশ্ন করেন, আমরা অবাক হচ্ছি এখনো কি রঘু বংশের উত্তরসূরি অযোধ্যায় রয়েছেন? বিচারপতির এই প্রশ্নের জবাব দিতে পারেননি আইনজীবী। তিনি বলেছিলেন, “এ মুহূর্তে আমার কাছে তেমন তথ্য নেই,তবে খোঁজ নিয়ে জানাবো।” তারপরই দিয়া কুমারী এই দাবি করেন।

২০১০ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্টের রায় অযোধ্যা ২.৭৭ একর জমি তিন ভাগ করে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড, নির্মোহী আখড়া এবং রামলালার মধ্যে ভাগ করে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্থ হন ১৪ জন আবেদনকারী। সমস্যা সমাধানে মধ্যস্থতা প্যানেল তৈরি করে রফা করার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তা ব্যর্থ হওয়ায় ওই মামলার দায়িত্ব সুপ্রিম কোর্ট নিজের হাতে তুলে নিয়েছে। প্রতিদিন চলছে অযোধ্যা মামলার শুনানি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

4 × 5 =