বাংলাদেশের সাথে ওজন বিভ্রাট তরজায় হিলিতে দিনভর বন্ধ আমদানি-রপ্তানী, আন্দোলন দক্ষিণ দিনাজপুর ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের, বিপুল ক্ষতি রাজস্বে

পিন্টু কুন্ডু, আমাদের ভারত, বালুরঘাট, ৫ ডিসেম্বর: ভারত থেকে বাংলাদেশে যাওয়া পণ্যের ওজন বিভ্রাট তরজায় দিনভর বন্ধ আমদানি-রপ্তানী। বিপুল ক্ষতি রাজস্বে। রবিবার দক্ষিণ দিনাজপুর ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের ডাকে সাড়া দিয়ে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বাংলাদেশে পণ্য পরিবহন বন্ধ রাখল ট্রাক মালিকরা। ঘটনাকে ঘিরে তুমুল শোরগোল দু’দেশের সীমান্তে।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, ভারতের ওজন কাঁটায় পণ্য মেপে বাংলাদেশে সঠিক ওজনের পণ্য নিয়ে গেলেও সেদেশে ইচ্ছাকৃতভাবে কমানো হচ্ছে ওই পণ্যের ওজন। আর যে কারণে ভারতের রপ্তানী ব্যবসায়ীরা লরি মালিকদের কাছ থেকে কেটে নিচ্ছে ঘাটতি পণ্যের টাকা। ফলে আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে ট্রাক মালিকদের। যার প্রতিবাদেই এদিন পণ্য পরিবহণ বন্ধ করে রাস্তায় নামে ট্রাক মালিকরা। হিলি চেকপোস্টে অবস্থান বিক্ষোভও দেখান কয়েকশো ট্রাক মালিক। আর যাকে ঘিরে তুমুল উত্তেজনা ছড়ায় সীমান্ত এলাকায়।

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি দিলীপ গুহ বলেন, বাংলাদেশে আমাদের ড্রাইভারদের ওজন দেখানো হয় না। ড্রাইভাররা ওজন দেখতে চাইলে সেখানে তাদেরকে ভয় দেখানো হয়। এমনকি ওজন ইচ্ছাকৃতভাবে কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। পণ্যের ওজনের ঘাটতি হওয়ার কারণে আমাদের গাড়ি ভাড়া থেকে ঘাটতি পণ্যের মূল্য কেটে নিচ্ছে ভারতের রপ্তানি ব্যবসায়ীরা। যার প্রতিবাদেই এই আন্দোলন। সমস্যার সমাধান না হলে তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

ট্রাক চালক আমজাদ হোসেন বলেন, ভারতীয় ট্রাক চালকদের উপর অকথ্য অত্যাচার চলে ওপারে। ইচ্ছাকৃতভাবে তাদের চোর বদনাম করছে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা।

হিলি এক্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক ধীরাজ অধিকারী বলেন, হঠাৎ করে ট্রাক মালিকরা পণ্য পরিবহন বন্ধ রাখায় চরম ব্যবসায়িক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন তারা। ওপারের ব্যবসায়ীদের সাথে এব্যাপারে কথা বলেছেন। আলোচনার মাধ্যমেই এসবের সমাধান ঘটবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here