বর্তমানের গতি বজায় থাকলে, লকডাউনের শেষ দিনে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হবে ১৭ হাজার

আমাদের ভারত, ৭ এপ্রিল : স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সূত্রে ভারতে করোনা সংক্রমণের যে পরিসংখ্যান দেওয়া হচ্ছে তার দিকে তাকালেই আতঙ্ক বাড়ছে। ওই পরিসংখ্যান বলছে যদি করোনা আক্রান্তের হার বর্তমানের গতি ধরে রাখে তাহলে যেদিন লকডাউন শেষ হবে অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াবে ১৭ হাজার। এখনো পর্যন্ত ভারতে করোনায় আক্রান্ত ৪৪২১ জন। মৃত্যু হয়েছে ১১৪ জনের।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান যদি মূল্যায়ন করা হয় তাহলে দেখা যাচ্ছে ১৫ মার্চ ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র পাঁচ দিনের মধ্যে দ্বিগুণ হয়ে গিয়েছিল। পরবর্তী সময়ে সংখ্যাটা দ্বিগুণ হতে লেগেছে মাত্র ৩ দিন। হঠাৎই সংক্রমণের ক্ষেত্রে তীব্র গতি নেয় মরন ভাইরাস। ২৩ মার্চ থেকে ২৯ মার্চ অর্থাৎ ৬ দিনে আবার দ্বিগুণ হয়ে গেছে ভারতে করোনা সংক্রমনের সংখ্যা। সেই সময় সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল এক হাজারের কাছাকাছি। আবার তার চার দিনের মাথায় ২ এপ্রিল সারাদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার পেরিয়ে যায়। অর্থাৎ চার দিনে আবার দ্বিগুণ। আজ ৭ এপ্রিল করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৪২১ অর্থাৎ আবারও ৪ দিনের আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রক বলছে আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হওয়ার সময়কাল চার দিন না হয় সাত দিন হতো। কিন্তু এর পেছনে দায়ী তাবলিগি জামাতের জমায়েত। স্বাস্থ্যমন্ত্রক আগেই জানিয়েছে যে সারাদেশে মোট সংক্রমিতের ৩০ শতাংশ তাবলিগি জামাতের সঙ্গে যুক্ত। আর সেই জন্যেই দেশবাসীকে বড় এবং লম্বা লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রীও।

তবে বিশেষজ্ঞরা বলেছেন ২১ দিনের এই লকডাউনের সিদ্ধান্তে কিছুটা হলেও কমেছে সংক্রমনের গতি। না হলে আরো দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে যেতো।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here