মহিলাদের ও তাদের পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে হাতে অস্ত্র তুলে নিতে হবে: লকেট চ্যাটার্জি

4

আমাদের ভারত, পূর্ব মেদিনীপুর, ২৮ ফেব্রুয়ারি :
পুলিশ সুপার নিজের মুখে পুড়িয়ে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছেন। তবুও এখনো পর্যন্ত সবাই গ্রেপ্তার হয়নি। উনি কিছু দেখতেও পান না। কিছু শুনতেও পান না। মন্ত্রী উপর থেকে যা বলবেন সেভাবেই কাজ হবে। এইভাবে পুলিশ সুপারকে কটাক্ষ করেন লকেট চ্যাটার্জি। তিনি আরো বলেন, রাজ্যে কামদুনি হয়েছে আরো অন্যান্য মহিলাদের মারা হয়েছে, কিন্তু সবকিছু ধামাচাপা পড়ে গেছে। তাই এক্ষেত্রেও তাই হবে। তাই মহিলাদের সুরক্ষিত থাকতে ও তাদের পরিবারকে সুরক্ষিত রাখতে নিজেদের অস্ত্র হাতে তুলে নিতে হবে। এছাড়া কিছু করার নেই। মোমবাতি মিছিল করে কিছু হবে না।

আজ বিজেপি নেত্রী লকেট চ্যাটার্জি ও সায়ন্তন বসুর নেতৃত্বে পূর্ব মেদিনীপুরের জেলা পুলিশ সুপারের অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখানো হয়। হলদিয়ার ঝিকুড়খালিতে মা ও মেয়েকে পুড়িয়ে মারার ঘটনায় দোষীদের ফাঁসির দাবিতে তমলুকে জেলা পুলিশ সুপারের অফিসে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। তমলুকের মানিকতলা মোড় থেকে একটি পদযাত্রা করে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে লকেট চ্যাটার্জি ও সায়ন্তন বসু পুলিশ সুপারের অফিসে আসেন। পুলিশ সুপারের অফিসের সামনে বক্তব্য রাখেন লকেট চ্যাটার্জি এবং সায়ন্তন বসু। এরপর লকেট চ্যাটার্জি ও সায়ন্তন বসুর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল পুলিশ সুপারের সঙ্গে দেখা করে স্মারকলিপি দেন। পুলিশ সুপার ইন্দিরা মুখোপাধ্যায় না থাকায় তারা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম হাসানের কাছে স্মারকলিপি জমা দেন। কয়েক হাজার কর্মী সমর্থক আজকের বিক্ষোভ সমাবেশে যোগদান করে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here