থানা থেকে পালিয়ে গিয়েও আবার ধরা পড়ে জেলে সিপিএমের প্রাক্তন উপ প্রধান

আমাদের ভারত, পূর্ব মেদিনীপুর, ২৩ নভেম্বর: গ্রেপ্তারের পর নন্দকুমার থানা থেকে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করল দামোদরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সিপিএমের প্রাক্তন উপপ্রধান সনাতন ঘোষ। পরে পুলিশ আবার তাকে গ্রেপ্তার করে। আজ ধৃতকে তমলুক আদালতে তোলা হলে বিচারক তিন দিনের জেল হেপাজত দিয়েছেন।

গ্রেপ্তার করে থানায় আনার কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে থানা থেকে পালানোর চেষ্টা করল ধৃত। জানাগেছে, নন্দকুমার থানা এলাকার ৪ নম্বর অর্থাৎ দামোদরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সিপিএমের প্রাক্তন উপপ্রধান সনাতন ঘোষকে একটি মারপিটের মামলায় গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসে নন্দকুমার থানার পুলিশ। গ্রেপ্তারের কিছুক্ষণ পর তাকে থানায় নিয়ে আসলে কাগজপত্রে সই করার সময় হঠাৎই পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে থানা থেকে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে সনাতন দাস। পালানোর সঙ্গে সঙ্গেই পেছনে দৌড়াতে থাকে নন্দকুমার থানার পুলিশ ও সিভিক ভলানটিয়াররা। কিছুক্ষণের মধ্যে নন্দকুমার বাজার সংলগ্ন ফলবাজার এলাকা থেকে ধরা পড়ে ওই পলাতক। ধরতে গিয়ে আহত হয়েছেন নন্দকুমার থানার এক সিভিক ভলানটিয়ার। ধরা পড়ার পর অভিযুক্তকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় ও গ্রেপ্তার করা হয়।

জানাগেছে, বর্তমানে ঠেকুয়া বাজার সংলগ্ন কাঠপুল এলাকায় একটি হার্ডওয়্যারের দোকান চালান অভিযুক্ত। শনিবার অভিযুক্তকে তমলুক মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১১ নভেম্বর এক মহিলার ছোট ছেলেকে মারধর করার অভিযোগের ভিত্তিতে ওই উপপ্রধানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাকে আদালতে তোলা হলে
তিন দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন তমলুক মহকুমা আদালতের বিচারক। অভিযুক্তের বক্তব্য গতকাল ভয়ে পালাচ্ছিল সে। মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে তাঁকে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here