পাহাড়িপুর বালিকা বিদ্যালয়ের উদ্যোগে যোগাসন ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৯ মার্চ: পাহাড়িপুর বালিকা বিদ্যালয়ের ১২৫ বছর উদযাপন উপলক্ষ্যে সোমবার বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হল ছাত্রীদের আন্তঃবিদ্যালয় যোগাসন প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতায় উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানান বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রাধারানী খাঁড়া।

প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রামকৃষ্ণ মিশন বিদ্যাভবনের প্রধান শিক্ষক স্বামী জয়সানন্দজী মহারাজ। উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট যোগা প্রশিক্ষক ও বিচারক অর্জুন চন্দ্র কুন্ডু, পূর্ণেন্দু শেখর কালী, তারকেশ্বর সেতুয়া সিদ্ধেশ্বর সিনহা, চিনাংশুক দাস, চন্দন দাস, অমরনাথ দাস, শুভাশীষ পাল, তপন চন্দ্র, এসআই পৌলমী সাউ, রাধামাধবজী হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষিকা রুমা ঘোড়াই, আরকে মিশনের শিক্ষক প্রভাত বেরাসহ অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা।

অংশ নিয়েছিল মেদিনীপুর শহরের বেশ কয়েকটি বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা। প্রতিযোগিতায় যোগ দিয়েছিল বিদ্যাসাগর বিদ্যাপীঠ বালিকা বিদ্যালয়, কলেজিয়েট গার্লস হাইস্কুল, রাধামাধবজী হাইস্কুল, মেদিনীপুর টাউন স্কুল(বালিকা), নারায়ণ বিদ্যাভবন (বালিকা), রাঙামাটি কিরণময়ী হাইস্কুল, সরস্বতী বিদ্যামন্দির ও আয়োজক পাহাড়িপুর বালিকা বিদ্যালয়ের ৪৬ জন ছাত্রী। প্রতিযোগিতাটি পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের ক্রীড়া শিক্ষিকা রীতা দাস।

অন্যদিকে মঙ্গলবার রাধাশ্যাম চ্যারিটেবল ট্রাস্টের সহযোগিতায় বিনামূল্যে একটি স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবির অনুষ্ঠিত হয়। উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ কৃপাসিন্ধু গাঁতাইত সহ অন্যান্য বিশিষ্ট চিকিৎসকরা। উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রাধারানী খাঁড়া, বিদ্যালয়ের পরিচালন সমিতির সভাপতি মৃণাল কান্তি চৌধুরী সহ অন্যান্য বিশিষ্ট জনেরা। ছিলেন বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ও শিক্ষাকর্মীরা। এই শিবিরে প্রায় ২০০ জনের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। শিবিরে বিনালমূল্যে ইসিজি, সুগার টেস্ট সহ অন্যান্য পরীক্ষা হয়। পাশাপাশি ওষুধ বিতরণ করা হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here