করোনার থাবা এবারে তৃণমূলের ঘরে, আক্রান্ত দক্ষিণ দিনাজপুরের যুব নেতা

পিন্টু কুন্ডু, বালুরঘাট, ২৭ জুন: দক্ষিণ দিনাজপুরে করোনার থাবা এবারে তৃণমূলের ঘরে। আক্রান্ত যুব নেতা। সাংবাদিক বৈঠক করে সাতদিনের কর্মসূচি স্থগিত রাখার ঘোষণা জেলা সভাপতি অর্পিতা ঘোষের। জানা গিয়েছে, আক্রান্ত যুব নেতা কুশমণ্ডি বিধানসভার দায়িত্বেও রয়েছেন তিনি। গত ২৫ জুন তিনি লালার নমুনা পরীক্ষা করান। শনিবার মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে সেই রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে বলে স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর। আর যাকে ঘিরেই তৈরি হয় তুমুল চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার বুনিয়াদপুরে রাজ্যের মন্ত্রী তথা জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় যোগ দিয়েছিলেন ওই তৃণমূল নেতা। সেখানে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভানেত্রী তথা রাজ্যসভার সাংসদ অর্পিতা ঘোষ সহ জেলার প্রথম সারির তৃণমূল নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। এদিন ওই নেতার পজিটিভের রিপোর্ট সামনে আসতেই রীতিমতো শোরগোল পরিস্থিতি তৈরি হয় নেতৃত্বদের অন্দরে।

এদিন বালুরঘাটে বাংলার গর্ব মমতা অনুষ্ঠানে সাংবাদিক বৈঠক করবার সময় অর্পিতা ঘোষ জানান, সভায় উপস্থিত সমস্ত তৃণমূল নেতারাই হোম কোয়ারেন্টাইনে যাচ্ছেন। পাশাপাশি আগামী ২ জুলাই তাঁরা বালুরঘাটে সবাই লালার নমুনা পরীক্ষা করাবেন। গঙ্গারামপুর মহকুমার নেতারা গঙ্গারামপুরে সোয়াব দেবেন। উপস্থিত কর্মীদের পুল টেস্টও করা হবে। আর এর জেরে সরকারি নিয়ম মেনে আপাতত ২জুলাই পর্যন্ত তৃণমূলের সমস্ত সভা সমিতি বাতিল করা হয়েছে।

এদিন দক্ষিণ দিনাজপুরে নতুন করে যে ১২ জনের পজেটিভ ধরা পড়েছে তাঁদের মধ্যে রয়েছেন জেলা তৃণমূল যুব নেতা। সব মিলিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাড়িয়েছে ১৯১ জন। যদিও তার মধ্যে ১০০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন বলে স্বাস্থ্য দপ্তর সুত্রের খবর। পাশাপাশি জেলায় ফিরে আসা প্রায় ৫০ হাজার পরিযায়ী শ্রমিকদের মধ্যে ৪৪ হাজার শ্রমিক তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার মেয়াদও পার করেছেন বলে জেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে।

তবে করোনা আক্রান্তের সাথে মিটিং করার পরও জেলা তৃণমূল সভাপতি কি করে হোম কোয়ারেন্টাইনে না থেকে সাংবাদিক বৈঠক করছে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ। তবে কি তিনি তা সাংবাদিকদের মধ্যেও ছড়িয়ে দিতে চাইছেন সে প্রশ্নও তুলেছেন সাংসদ। সুকান্ত মজুমদার জানিয়েছেন, দিল্লি থেকে ফিরে তিনি জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিককে জানিয়ে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরেও তাঁকে ত্রাণ দিতে যেতে বাধা দিয়েছে পুলিশ প্রশাসন। এমনকি ফের কোয়ারেইন্টাইনে যাওয়ার নোটিশ পর্যন্ত ধরানো হয়েছিল।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here