ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র গড়ে তোলাই লক্ষ্য! মিরাটের নাম বদলে হবে নাথুরাম গডসে নগর, নির্বাচনী ইশতেহারে দাবি হিন্দু মহাসভার

আমাদের ভারত, ২২ নভেম্বর: যদি তাদের প্রার্থী শহরের মেয়র নির্বাচিত হন, তাহলে প্রত্যেকটি ইসলামি জায়গার নাম বদলে হিন্দুদের স্বার্থে যারা কাজ করেছেন সেই মহারথীদের নামে জায়গার নামকরণ হবে। যেমন মিরাটের নাম বদলে হবে নাথুরাম গডসে নগর। উত্তর প্রদেশের পৌর নির্বাচনের আগে ইস্তেহারে এমনটাই দাবি করেছে হিন্দু মহাসভা।

একই সঙ্গে তারা দাবি করেছেন, ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে তারা এগোচ্ছেন। অন্যদিকে বিজেপি ও শিবসেনাকে এক হাত নিয়েছেন। তাদের অভিযোগ, এই দুই দলে অন্য ধর্মের সদস্য সংখ্যা বাড়ছে ফলে তারা আদর্শচুত্য হচ্ছে।

আগামী ডিসেম্বরে মিরাট সহ উত্তরপ্রদেশের একাধিক শহরে পৌর নির্বাচন। মঙ্গলবার হিন্দু মহাসভার তরফে জানানো হয়েছে নির্বাচনের প্রতিটি ওয়ার্ডে তারা প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন। তার জন্য দেশপ্রেমিক কর্মীদের খুঁজে বের করছে সংগঠন। তাদের প্রার্থী হিসেবে ভোটে দাঁড়াতে গেলে লিখিতভাবে জানাতে হবে সারা জীবন সে হিন্দু মহাসভার আদর্শকে মেনে চলবে।

সদ্য মিরাটের দায়িত্ব পাওয়া হিন্দু মহাসভার কর্মী অভিষেক আগারওয়াল মঙ্গলবার পৌর নির্বাচনের জন্য দলের তরফে ইস্তেহার প্রকাশ করেছেন। তিনি ও দলের জাতীয় স্তরের আরেক নেতা অশোক শর্মা জানিয়েছেন, হিন্দু মহাসভার প্রার্থীরা বিপুল সংখ্যায় জিতে পৌরসভা দখল করলে মিরাটের নাম বদলে ফেলা হবে। শহরের নতুন নাম রাখা হবে নাথুরাম গডসে নগর। এছাড়াও ইসলামিক নামে যে সমস্ত জায়গাগুলির নাম রয়েছে সেগুলিও বদলে ফেলা হবে। সেখানে হিন্দু মহারথীদের নামে জায়গা গুলির নাম রাখা হবে।

হিন্দু মহাসভার ইশতেহারে আরও বলা হয়, ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলা হবে। সমস্ত জায়গায় যেনো গোমাতাকে রক্ষা করা হয় সে বিষয়টি নিশ্চিত করা হিন্দু মহাসভার প্রাথমিক দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। বিজেপি ও শিবসেনার মতো দলকে আক্রমণ শানিয়ে হিন্দু মহাসভার নেতা বলেছেন, নিজেদের হিন্দু দল বলে দাবি করে বিজেপি, কিন্তু বর্তমানে দেখা যাচ্ছে এই দলে অন্য ধর্মের প্রভাব বাড়ছে। হিন্দুত্ববাদী আদর্শ থেকে তারা বিচ্যুত হয়ে যাচ্ছে। একই অবস্থা শিবসেনারও। তারা মুসলিম তোষণ করার পথে এগোচ্ছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here